ধরলা নদীতে নির্মিত ‘শেখ হাসিনা সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় ৯৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের দ্বিতীয় ধরলা সেতু উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সেতুটির উদ্বোধন করেন তিনি। সেতুটির নামকরণ করা হয়েছে ‘শেখ হাসিনা ধরলা সেতু’।

সেতুর উদ্বোধনকে ঘিরে ধরলার পূর্ব পাড়ের ফুলবাড়ী, নাগেশ্বরী ও ভূরুঙ্গামারী উপজেলাসহ গোটা জেলার মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়। কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সেতুর পূর্ব পাড়ে আছিয়ার বাজার এলাকায় উদ্বোধনী ফলক স্থাপন, ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বড় পর্দায় প্রদর্শনসহ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সেতুটি চালু হওয়ায় প্রায় ১০ লাখ মানুষের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগের অবসান হলো। এই সেতুর মাধ্যমে ওই এলাকায় ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে এবং নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর এই সেতুটির নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন। সেতুটি নির্মাণ করছে সিমপ্লেক্স এবং নাভানা কনষ্ট্রাকশন গ্রুপ। ৯৫০ মিটার দীর্ঘ ও ৯ দশমিক ৮০ মিটার চওড়া সেতুটির ১৯টি স্প্যান ও ৯৫টি গার্ডার রয়েছে। দৈর্ঘ্যে বঙ্গবন্ধু সেতুর পর এই সেতুর অবস্থান বলে নির্মাণকারী সংস্থা এলজিইডির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

এলজিইডি সূত্রে আরো জানা গেছে, মূল সেতুর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ১৩১ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। ফুলবাড়ী ও লালমনিরহাট অংশে ২ হাজার ৯১৯ মিটার সংযোগ সড়ক নির্মাণ বাবদ ১৩ কোটি ৯ টাকা, ৩ হাজার ৪৮০ মিটার নদী শাসনে ৪৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা, ২ কোটি ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে ১৩ একর।