জুভেন্টাসে রোনালদোর মেডিকেল রিপোর্ট দেখলে চমকে যাবেন আপনিও

পাসপোর্টে লেখা আছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর বয়স ৩৩। তার জন্ম তারিখ হিসাবেও বয়সটা ৩৩। কিন্তু মেডিক্যাল হিসাব যে বলছে অন্য কথা। তার বয়স ২০ বছর! ১৩ বছরই কমে গেল?

আশ্চর্য্য জনক এই কথাটি বলেছে জুভেন্টাসই। জুভেন্টাসে মেডিকেল করানোর পর সেই রিপোর্ট বলছে রোনালদোর শরীর এখনো ২০ বছরের তরতরে যুবকের মতই সামর্থবান।

মেডিকেল রিপোর্টে বলা হয়, সাধারন প্রফেশনাল ফুটবলারদের দেহের তুলনায় রোনালদোর দেহে মেদের পরিমান আরো তিন শতাংশ কম। তার পেশীর শক্তি অন্যান্য প্রফেশনাল ফুটবলারের তুলনায় ৪ শতাংশ বেশি শক্তিশালী।

সবচেয়ে মজার ব্যাপার হলো, এই ৩৩ বছর বয়সে এসে বিশ্বকাপে সবচেয়ে গতি সম্পন্ন তারকা তারকা হয়েছে রোনালদো। ৩৩.৯৮ কি:মি গতিতে দৌড়েছেন রোনালদো।

তবে খেলোয়ারটা যেহেতু রোনালদো, তাই এই্ মেডিকেল রিপোর্ট অবশ্য বেশি একটা আশ্চর্যের নয়। কেননা, জুভেন্টাসে যোগ দিয়েই তিনি বলেছিলেন, আমি এখানে এসেছি। কারন, এটা আমার ক্যারিয়ারের বড় চ্যালেঞ্জ। কেননা আমার বয়সে খেলোয়াররা চীনে যাচ্ছে।

আমি ভালো আছি, শারীরিক, মানষিক ভাবে। যার কারনে আমি এখানে এসেছি। এটা আমাকে গর্বিত করেছে। ৩২, ৩৩ বা ৩৪, সব বয়সী খেলোয়ারদের থেকেই আমি আলাদা।

বিডি২৪রিপোর্ট/জুয়েল